1. munnait2020@gmail.com : newsdesk :
দেড় বছর পর ১৯ আগস্ট থেকে সীমিত পরিসরে খুলছে বান্দরবানের স্পট, হোটেল-মোটেল - জাগো দর্পণ
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৩ অপরাহ্ন
সংবাদ সংক্ষেপঃ
মঠবাড়িয়ায় মাদক মামলায় মা ও মেয়ের সশ্রম কারাদন্ড নাজিরপুরে ভিমরুলের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু ইন্দুরকানীতে গলায় ফাঁস লাগানো ভাসমান অজ্ঞাত যুবতীর মরদেহ উদ্ধার কাউখালীতে ২শ পিচ ইয়াবাসহ গ্রেফতার-২ পিরোজপুরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ৩ শত পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা বিতরণ ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করার মামলায় রাগীব আহসান ও তার ৩ ভাই ৭ দিনের রিমান্ডে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সম্পাদকের জন্মদিন উপলক্ষে পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা এহসান গ্রুপের অভিনব প্রতারণা সুদমুক্ত বিনিয়োগের ধারণা দিয়ে ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ // সহযোগীসহ এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান রাগীব আটক পিরোজপুরে গ্রাহককে ডেকে নিয়ে মারধরের ঘটনায় এহসান গ্রুপ পরিচালকের দুই ভাই গ্রেফতার

দেড় বছর পর ১৯ আগস্ট থেকে সীমিত পরিসরে খুলছে বান্দরবানের স্পট, হোটেল-মোটেল

জাগো দর্পণ ভ্রমন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় শনিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৩ জন দেখেছেন

সবুজ অরণ্যে ঘেরা জেলা বান্দরবান। করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর বন্ধ ছিল জেলার পর্যটন কেন্দ্র। তবে ১৯ আগস্ট থেকে সীমিত পরিসরে সকল পর্যটন স্পট, হোটেল-মোটেল খুলে দেওয়া হচ্ছে। আগামী সোমবার অথবা মঙ্গলবার এ–সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, জেলায় করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আগের চেয়ে কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছে। তাছাড়া বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এই প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, আগামী ১৯ আগস্ট থেকে আসন সংখ্যার ৫০ শতাংশ ব্যবহার করে খুলতে পারবে হোটেল-মোটেল-রেস্তোরাঁ। এ ছাড়া পর্যটন কেন্দ্র, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র চালু করারও অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

জেলার পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রা জানান, পর্যটন মৌসুমে জেলা শহর ও উপজেলার প্রায় ৬০টি আবাসিক হোটেল-মোটেলে  দৈনিক পাঁচ হাজারের বেশি পর্যটক আসেন। পর্যটকদের সেবায় প্রায় ১ হাজার ২৫০ জন কর্মী, ৩৫০ জন ট্যুরিস্ট গাইড, পাঁচ শতাধিক গাড়ি চালক ও চালকের সহকারী এবং খাবারের দোকানের কর্মচারীদের কর্মসংস্থান হয়ে থাকে। তারা এখন সবাই বেকার সময় পার করছেন।

আবাসিক হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম জানান, জেলায় কর্মসংস্থান ও আয়ের বড় খাত হচ্ছে পর্যটন। পর্যটনের আর্থিক শৃঙ্খলায় একজন পর্যটকের পেছনে সরাসরি ১১ শ্রেণির পেশাজীবী মানুষ লাভবান হন। সে হিসাবে বান্দরবানে প্রতিদিন গড়ে ৫ হাজার পর্যটকের সঙ্গে ৫৫ হাজার মানুষের আয় রোজগারের বিষয় রয়েছে। পর্যটন খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তে আমরা খুশি।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক লুৎফুর রহমান বলেন, যেহেতু করোনাভাইরাস পুরোপুরি যাচ্ছে না, তাই ভাইরাসটির সঙ্গে অভিযোজন করে বাঁচতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে কড়া নজরদারি থাকবে। মাস্ক ছাড়া কাউকে পর্যটন কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হবে না। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল রেতে হবে।

শেয়ার করুন

একই ধরনের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 JagoDarpan
Theme Customized BY JAGODARPAN