1. munnait2020@gmail.com : newsdesk :
আমরা বলবো ভালো নির্বাচন হয়েছে: ইসি সচিব - জাগো দর্পণ
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ সংক্ষেপঃ
মঠবাড়িয়ায় মাদক মামলায় মা ও মেয়ের সশ্রম কারাদন্ড নাজিরপুরে ভিমরুলের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু ইন্দুরকানীতে গলায় ফাঁস লাগানো ভাসমান অজ্ঞাত যুবতীর মরদেহ উদ্ধার কাউখালীতে ২শ পিচ ইয়াবাসহ গ্রেফতার-২ পিরোজপুরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ৩ শত পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা বিতরণ ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করার মামলায় রাগীব আহসান ও তার ৩ ভাই ৭ দিনের রিমান্ডে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সম্পাদকের জন্মদিন উপলক্ষে পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা এহসান গ্রুপের অভিনব প্রতারণা সুদমুক্ত বিনিয়োগের ধারণা দিয়ে ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ // সহযোগীসহ এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান রাগীব আটক পিরোজপুরে গ্রাহককে ডেকে নিয়ে মারধরের ঘটনায় এহসান গ্রুপ পরিচালকের দুই ভাই গ্রেফতার

আমরা বলবো ভালো নির্বাচন হয়েছে: ইসি সচিব

জাগো দর্পণ ওয়েব ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় বুধবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৬৭ জন দেখেছেন

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেছেন, গণমাধ্যম থেকে যেটুকু দেখেছি এবং আমাদের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে যে প্রতিবেদন পেয়েছি, আমরা বলবো ভালো নির্বাচন হয়েছে।

আজ বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে চসিক নির্বাচন নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন তিনি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘৭৩৫টা কেন্দ্রের মধ্যে দুইটা কেন্দ্রে সহিংসতা হয়েছে। এটাকে কী বলবেন? পারসেন্টেজ করেন। কত শতাংশ হয়। শান্তিপূর্ণ কত, আর অশান্তিপূর্ণ কত?’

মো. আলমগীর বলেন, ‘চট্টগ্রাম সিটিতে ভোটার উপস্থিতি একটু কম ছিল। আর শুধু চট্টগ্রামের ক্ষেত্রে না, যে কোনো বড় শহরে নির্বাচনকালে বিশেষ করে ভাসমান লোকজন বেশি থাকে। বাইরের লোকজন বেশি থাকে, সেখানে উপস্থিতিটা একটু কম হয়। চট্টগ্রামে আমরা আরেকটু বেশি আশা করেছিলাম। কিন্তু ভোটার উপস্থিতি আশার চেয়ে একটু কমই হয়েছে।’

বিএনপির অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি কোথায় হলো? ৭৩৫ টি কেন্দ্র, তার মধ্যে মাত্র দু’টি কেন্দ্রে ইভিএম ভাঙচুর করা হয়েছে। ইভিএম না ভাঙলে সেখানে নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হতো। ইভিএম ভাঙায় সেখানে নির্বাচন স্থগিত রাখা হয়েছে।’

সচিব বলেন, ‘তবে দুটি কেন্দ্রে কিছু উশৃঙ্খল লোকজন, যারা ইভিএমে ভোট হোক চান না, তারা ওখানে আক্রমণ চালিয়েছিল। ইভিএম ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আমরা ওই দুটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করে দিয়েছি। এছাড়া অন্য কেন্দ্রগুলোতে অত্যন্ত স্বাভাবিকভাবে নির্বাচন হয়েছে। যারা ভোট দিতে এসেছিলেন, তারা ভোট দিয়ে গেছেন।’

সহিংসতার বিষয়ে মো. আলমগীর বলেন, ‘আমাদের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতে এ ধরনের নির্বাচনগুলোতে কিছু ঘটনা ঘটে। তার হিসাবে যদি বলেন, তাহলে বলবো যে, বরং বিশৃঙ্খলা কমই হয়েছে। মাত্র দুটি কেন্দ্রে সহিংসতা হয়েছে। যারা দুষ্কৃতিকারী, তারা এগুলো করার চেষ্টা করেন। বিশেষ করে ইভিএমে ভোট হলে অনেকেই মনে করেন যে, জাল ভোট দেওয়া যাবে না। তারাই সাধারণত এগুলো করে থাকে। কিছু লোক তো থাকেই এরকম। তারপরও চট্টগ্রামের ভোট সুষ্ঠু করার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ২০ হাজার সদস্য কর্মরত ছিল। কমিশনের পক্ষ থেকে যে ব্যবস্থা নেওয়ার দরকার,তা নেওয়া হয়েছিল।’

শেয়ার করুন

একই ধরনের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 JagoDarpan
Theme Customized BY JAGODARPAN